Email-Marketing-part-02

ইমেইল মার্কেটিং দিয়েই হোক ফ্রিল্যান্সিং এর শুরু (দ্বিতীয় পর্ব)


”ইমেইল মার্কেটিং দিয়েই হোক ফ্রিল্যান্সিং এর শুরু ” শিরোনামে গত পর্বে প্রকাশিত টিউনে আমরা আলোচনা করেছিলাম ইমেইল মার্কেটিং এর বেসিক কিছু বিষয়ের উপর।(গত পর্ব  যারা দেখেননি তারা এখানে দেখতে পারেন)  তবে আজ এই পর্বের মূল আলোচনার বিষয় হচ্ছে, আপনি কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং এর কাজ শুরু করতে পারেন এবং কোন কোন কাজ দিয়ে প্রথমিক ভাবে শুরু করতে পারেন। তো চলুন শুরু করা যাক।

ইমেইল মার্কেটিং এর কাজ শুরু করার আগে ্আপনাকে কিছু কাজের উপর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। যে সকল বিষয়গুলো আপনি প্রাথমিক ভাবে শিখতে পারেন তা হলো:

  1. ইমেইল ক্যাম্পেইন কি?

ইমেইল ক্যাম্পেইন বলতে আমরা বুঝি টোটাল ইমেইল সেন্ডিং প্রক্রিয়া । ইমেইল ক্যাম্পেইন এর মধ্যে রয়েছে লিস্ট তৈরি করা, সাবস্ক্রাইবার আপ লোড করা, কোন ধরনের ক্যাম্পেইন করতে চান সেটা নির্বাচন করা,  সাবজেক্ট লাইন লেখা, সেন্ডিং ইমেইল ভেরিফাইড করা, টেম্প্লেট তৈরি করা। একটি ইমেইল ক্যাম্পেইন সেটআপ এর জন্য এই কাজগুলো  আপনাকে জানতে হবে।

যেহেতু ইমেইল মার্কেটিং করার জন্য বিভিন্ন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেমন: Mailchimp, Aweber, Getresponse, Madmimi, Campaign Monitor ইত্যাদি। তাই আপনি প্রাথমিক ভাবে এদের মাধ্যমে কিভাবে ক্যোম্পেইন সেটআপ করে সেটা শিখতে পারেন।

     2. ইমেইল ক্যাম্পেইন কত প্রকার ? 

ইমেইল ক্যাম্পেইন সাধারনত 4 ধরনের হয়ে থাকে। যেমন:

  1. Regular Campaign
  2. Autoresponder Campaign / Drip Campaign
  3. A/B Testing Campaign
  4. RSS Campaign

ইমেইল মার্কেটিং এ কাজ করতে গেলে বায়ারের চাহিদা অনুযায়ী এই সকল ক্যাম্পেইন গুলো সেটআপ করতে হয়। তাই এগুলো সম্পর্কে আপনাকে ভাল ভাবে জানতে হবে এবং প্রত্যেকটি ক্যাম্পেইন সেটআপ করার পদ্ধতি বাল ভাবে আয়ত্ত্ব করতে হবে।

     3. বিভিন্ন প্রকার ইমেইল মেসেজঃ 

ইমেইল ক্যাম্পেইন যেমন বিভিন্ন রকম হয় ঠিক তেমনি ইমেইলে পাঠানো মেসেজগুলো ও বিভিন্ন রকমের হয়ে থাকে। তো একটু দেখেনিন ইমেইল মেসেজ কি কি ধরনের হতে পারে।

  1. ‘Welcome’ Emails
  2. Dedicated Emails
  3. Newsletter Emails
  4. Digest Emails
  5. Lead Nurturing Emails
  6. Transactional Emails
  7. Anniversary Emails

ইমেইল মার্কেটিং এ কাজের সুবিধার্থে আপনাকে এর প্রত্যেকটি সম্পর্কে জানতে হবে। কারন বেশিরভাগ সময়ে-ই যেহেতু আমরা বায়ারের কাজ করব তাই জানিনা জে কোন বায়ার এর জন্য কোন ধরনের ক্যাম্পেইন এবং কি ধরনের মেসেজ পাঠাতে হবে। আবার ক্লায়েন্ট কাজ য়োর পূর্বে এসকল বিষয় গুলির উপর আপনাকে প্রশ্ন করতে পারে। তাই সবকিছু মিলিয়ে আপনাকে সকল প্রকার ক্যাম্পেইন ও মেসেজ সম্পর্কে ভাল ভাবে জানতে হবে।

    4. ইমেইল লিষ্ট বিল্ডিং: 

ইমেইল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে লিষ্ট বিল্ডিং যেহেতু অন্যতম গুরুত্ত্বপূর্ণ একটি কাজ তাই এই কাজের ক্লায়েন্টের সংখ্যাও অনেক। তাই সকল মার্কেটপ্লেসেই এই কাজের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তবে ইমেইল লিস্ট বিল্ডিং এর কাজ করতে হলে আপনাকে বেশ কিছু বিষয় সম্পর্কে ভাল ভাবে জানতে হবে। যেমন।

  1. ইমে্ইল লিস্ট ইন্টিগ্রেশন
  2. সাইনআপ ফর্ম তৈরি
  3.  স্কুইজ পেজ তৈরি
  4. লিষ্ট বিল্ডিং/অপটিন ফানেল
  5. লিড ম্যাগনেট
  6. ট্রাফিক জেনারেশন ইত্যাদি

     5. অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের জন্য ইমেইল মার্কেটিং

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য ইমেইল মার্কেটিং অনেক মার্কেটারের কাছে জনপ্রিয় পদ্ধতি। শুধুমাত্র ইমেইল মার্কেটিং রপ্ত করে বিভিন্ন অ্যাফেলিয়েট নেটওয়ার্ক থেকে (যেমন: Clickbank, Commission Junction, Plimus, One Network Direct) অ্যাফিলিয়েশনের প্রোডাক্ট সংগ্রহ করে ইমেইল মার্কেটিং-এর মাধ্যমে ক্যাম্পেইন করে প্রতি মাসে ৫০০ ডলার থেকে শুরু করে ২০ হাজার ডলার বা তারও বেশি আয় করছে অনেক মার্কেটার। কিন্তু আমি আপনাকে এখনি আবার এফিলিয়েট মার্কেটিং শিখতে বলছি না। তবে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর জন্য ইমেইল মার্কেটিং কিভাবে কাজে লাগে তা সম্পর্কে আপনার ধারনা থাকতে হবে। কারণ অনেক ক্লায়েন্ট আছে যে এফিলিয়েট প্রডাক্ট প্রমোট করার জন্য আপনাকে হায়ার করবে তাই এধরনের কাজের জন্য উপরে উল্লেখিত বিষয় গুলো জানা থাকতে হবে।

   6. টেম্পলেট ডিজাইন করাঃ

মার্কেটপ্লেসে ইমেইল মার্কেটিং এর যে সকল কাজ পাওয়া যায় তার মধ্যে বেশিরভাগ সময়েই ইমেইল টেম্প্লেট ডিজাইনের কাজ পাওয়া যায়। একটি ইমেইল টেম্প্লেট ডিজাইন  করে 10-40 ডলার পর্যন্ত আয় করা যায়। যেহেতু এটি খুবই সহজ একটি কাজ তাই এটি অল্প সময়ের মধ্যে করা যায়। তাই ইমেইল মার্কেটিং করে আয় শুরুর দিকে ইমেইল টেম্প্লেট ডিজাইন শেখার প্রতি বেশি গুরুত্ত্ব দিন।

 

অনেক তো হলো কাজ শেখার কথা এবার আসেন দেখি কোথায় কাজ পাওয়া যাবে। 

খুব সহজে ও অল্প সময়ের মধ্যে কাজ পাওয়ার জন্য Fiverr এবং Upwork এ একাউন্ট খুলে। তাদের নিয়ম কানুন মত প্রফাইল 100% করুন। ফাইবার হলে এবার গিগ তৈরি করুন। খুব বেশি না গিগ না তৈরি করে 4 থেকে 5 টা গিগ তৈরি করুন। তবে অভশ্যই কারো টা কপি করে এক ঘন্টার মধ্যে সবগুলা করতে যাবেন না। ইউনিক গিগ তৈরি করার চেষ্টা করুন এবং সময় নিয়ে কাজটা করুন। যত ভালো ভাবেিআপনার সাভিস উপস্থাপন করবেন সেল হওয়ার সম্ভাবনা তত বাড়বে।

আর আপওয়াকে একাইন্ট খুললে ইমেইল মার্কেটিং এরেউপর টেষ্ট দিন। প্রাকটিস করার সময়  যেসব কাজ করেছিলেন সেগুলো দিয়ে একটা পোর্টফলিও তৈরি করুন। বিড শরু করার আগে কিছুদিন বায়ার কি ধরনের জব পোষ্ট করে তা পর্যবেক্ষণ করতে থাকুন। এবং ্ওই সকল কাজগুলো কিভাবে করতে হয় কি কি তথ্য লাকে কাজ করতে তার একটা লিখিত লিস্ট তৈরি করুন।

এবার বিড শুরু করুন। তবে বিড করার জন্য কপি পেষ্ট ফরমূলা এপ্লাই না করে নিজে লিখুন। বায়ারের পোষ্ট করা জব এর ডিসক্রিপশন ভালো ভাবে কয়েকবার পড়ুন। আর প্রথম দিকে কোন রিপ্লাই না পেলেও ধৈর্য ধারণ করুন আর জবে এপ্লাই করতে থাকুন। এতে কাজ না পলেওে লাভ আছে।

আজ এর্যন্তই থাক। আগামী পর্বে থাকছে আরো চমক লাগানোর মত কিছু। পেস্টটি পড়ে কিছু শিখতে পারলে শেয়ার করে অন্যকে পড়ার সুজোগ দিন। 

ধন্যবাদ

 


About সমীর চন্দ্র হালদার

সমীর চন্দ্র হালদার
ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যেমে ফ্রিল্যান্সিং এ ক্যারিয়ার শুরু করা সমীর চন্দ্র হালদার বর্তমানে কাজ করছেন অনলাইন মার্কেটিং এর বেশ কয়েকটি শাখায়। নিজের দক্ষতা বাড়তে ট্রেনিং করেছেন নামকরা অনলাইন মার্কেটার Alex Jeffreys এর কাছে। বর্তমানে Upwork ও Fiverr এ ক্লায়েন্টের কাজ করার পাশাপাশি JvZoo এবং WarriorPlus এ রয়েছে নিজের প্রডাক্ট। এছাড়াও নিয়মিত কাজ করছেন Orville Robertson, Firas Alameh, Keith Burgess এবং Kevin Myles এর মত বড় বড় অনলাইন মার্কেটারদের প্রজেক্টে।

Check Also

freelancing-career

লাইভ ওয়েবিনার|ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত প্রশ্নোত্তর ও গাইডলাইন

বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে ”আইটি কোচ বিডির” পক্ষ থেকে একটি লাইভ ওযেবিনারের আয়োজন করা …